Poems by Ewith Bahar / Translated into Bengali by Professor Dr. Masudul Hoq

 
Poems by Ewith Bahar
 
 
——————– ইন্দোনেশিয়ার কবিতা—————
 
গোলকধাঁধা এবং অন্যান্য কবিতা
 
মূল: ইভিথ বাহার
রূপান্তর : মাসুদুল হক
 
 
১.গোলকধাঁধা (Labyrinth)
 
আত্মার কক্ষসমূহে গোলকধাঁধা
গোপনীয়তা লুকানোর এক শান্তিপূর্ণ খিলান
এবং নিয়তির এক বাসস্থান
গোলকধাঁধা…
একদার মনোরম রাস্তাগুলো,
এখন আর কোথাও নেই
আমরা আমাদের চিন্তা ও কল্পনাগুলোকে মুক্ত করার চেষ্টা করছি,
যা অনিবার্যভাবে ফাঁদে পড়েছিল,
একটি জটিল সুরঙ্গের মধ্যে;আরো গভীর গর্ত তৈরি করে সূর্যরশ্মি ধরায় নিমগ্ন হ‌ই
তবে প্রতিবারই আমরা দরজাটি খুলে দিয়ে
অন্য তালাবদ্ধ দরজায় সরব হয়ে পড়ি।
 
 
২.মহিমান্বিত অশ্রু (Sublime tears)
 
তোমার মহিমান্বিত অশ্রু
একটি সুরেলা বৃষ্টি, আমার হৃদয়ের সমুদ্রের মধ্যে প্রবাহিত
প্রতিটি কুলুঙ্গিনিসৃত জল
ভুল বোঝাবুঝি এবং হিংসার
অনুর্বর জমিতে প্রবাহিত হয়ে
আবেগের জঞ্জাল জলকে শুদ্ধ করে
তোমার মহিমান্বিত অশ্রু
ঈশ্বরের ফিসফিস
ফোটা ফোটা মুক্তার ঐশ্বরিক শক্তি
 
 
৩.বড় ভালবাসা,যাকে তুমি নিমন্ত্রণ করেছো
(Big love that you call home)
 
সময় উড়ছে
হাসি আর কান্নায় জীবন মুষরে যাচ্ছে
গতানুগতিকতা থেকে আধুনিকতার দিকে দ্রুত সময় ছুটছে
গতকাল থেকে আগামীকাল
চঞ্চলতা নিয়ে আসে রংদানিতে রঙের পরিবর্তন
নিয়ে আসে বাতাস আর ঝড়
এবং নারীরা তাদেরকে কমনীয় নৃত্যে মোহিত করে তোলে
যুগের পর যুগ নারীরা তাদের একই মুখ
প্রতারণামূলক কণ্ঠস্বর, কুটিল বা সুরময়
লুকানো আবেগ, নীরব অশ্রু বা ছদ্মবেশী হাসি ধারণ করে থাকে
তারা ক্ষতগুলোকে ক্ষমা করে দিয়ে নিরাময়-যোগ্য করে তোলে
তাদের ড্রয়ারগুলোতে থাকা ধারালো ছুরি
তাদের পড়া শত শত বই থেকেও জ্ঞানী
তারা কথা বলে, তারা লিখে, তারা দীক্ষা দেয়, তারা চূড়ান্ত করে
তারাই ভবিষ্যৎ যা তুমি স্বপ্ন দেখেছো,
তোমার জীবন নির্ভর করে ফুসফুস আর হৃদয়ে,
এবং বড় ভালবাসায়– যাকে তুমি নিমন্ত্রণ করেছো।
 
 
৪.তোমার কলম (Your pen)
 
তোমার কলমে, একেকটি কারাবন্দী শব্দ
মুক্ত হয়ে যায়, গাঙচিলে পরিণত হয়ে
অবাধে উড়তে থাকে সীমাহীন মুক্ত বাতাসে
শব্দ জেগে ওঠে
মর্যাদাপূর্ণ চিহ্ন হিসাবে, বিভাজকহীন নিরবচ্ছিন্ন
দ্বিধাহীনভাবে তাপ ছড়ায়
যখন তাদের মধ্যে অঙ্গার থাকে
কালি আর কলম যা স্বাধীনতা বোধের আকাঙ্ক্ষা করে
এখন বুদবুদিত হচ্ছে, উচ্ছ্বাসে পুড়ছে
তোমার কলম, আঁটসাঁট পোশাকের বাঁধন থেকে আমাদের মুক্তি দেয়
যা আমাদের আড়াল করে রেখেছিল কোমলতার সমস্ত চিহ্ন থেকে
তারপর, কবিতার উদ্বেগ মোচনের কী অসাধারণ শব্দ স্পন্দিত হয়ে ওঠে যখন নষ্ট-পচাদের ধ্বংস করা হয়
একটি উত্তেজনা, স্বাধীনতা অর্জনের আগ্রহে
অনির্বাণ জেগে ওঠে
এখন বিষন্নতার ছল‌ও চকচক করে ওঠে মার্বেলের মতো
সর্বশেষে প্রতিটি তিরস্কারকারী নিন্দুকের মুখ‌ও প্রতিস্থাপিত হয় পরমানন্দে
উৎকণ্ঠা, অপবিত্রতা আর প্রলোভনে ভরা তাদের নতুন মুখ
দ্বিধা এবং অনিচ্ছাতেও সৎ হয়ে ওঠে
তোমার কলমে, হে আমার কবি
শব্দ এখন বন্য ঘোড়া হয়ে উঠছে
যাবতীয় পাপ মাড়িয়ে যাচ্ছে দ্রুত গতিতে।
৫.প্রার্থনা
সবচেয়ে কম সময়ে
সবচেয়ে কঠিন যাত্রায়
ক্লান্তিকর লড়াইয়ে
আমাদের গভীর অব্যক্ত প্রার্থনা,
একটি ক্ষত মোচনকারী মলম
প্রেমের বাটি থেকে নিঃসৃত
পবিত্র ডানাসহ
আত্মা ধীরে ধীরে উড়ে যায়
প্রর্থনায়
পবিত্র আলোর সন্ধান করতে
নীরব প্রার্থনা
তা শূন্যতা নয় আশায় ভরা
এবং শুভ্র আন্তরিকতায়
নিঃশর্ত আত্মসমর্পণ করা
আত্মার মধ্যে আলো, হৃদয়ের বোঝা হালকা করে
আর চোখের সামনে
প্রশস্ত সাদা মাঠ জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে
আমরা নির্দ্বিধায়, কৃতজ্ঞতার সাথে,
সমাধানের পথে পৌঁছৈ যাই।
 
——— ——— ————
ইভিথ বাহার (Ewith Bahar)ইন্দোনেশিয়ার কবি, ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক এবং অনুবাদক। তিনি গণ-যোগাযোগের ক্ষেত্র রেডিও এবং টেলিভিশনে তার শিল্পজীবনের দীর্ঘ কেরিয়ার গড়ে তুলেছেন। টেলিভিশন অফ রিপাবলিক অফ ইন্দোনেশিয়ায় (টিভিআরআই, একটি সরকারী টিভি স্টেশন) সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকা হওয়ার কারণে তার দৃষ্টি প্রশস্ত হয়েছে, যা তার লেখার কাজে অনেক সাহায্য করে। তার একটি কবিতা বই সেরা পাঁচটি ইন্দোনেশিয়ান কবিতার বই হিসাবে ইন্দোনেশিয়ান জাতীয় গ্রন্থাগার থেকে সম্মানজনক পুরস্কার পেয়েছে ২০১৯ সালে।
ইভিথ বাহার পড়াতেও পছন্দ করেন। তিনি একটি যোগাযোগ-বিষয়ক ইন্সটিটিউটের শিক্ষক ছিলেন; ‌এছাড়া যোগাযোগের বিষয়াদি, সৃজনশীল লেখালেখি ও সম্পাদনা বিষয়ে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন।
 
 

Translated into Bengali by Professor Dr. Masudul Hoq

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s